মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Md.Abiar Rahman, ২৭ নভেম্বর, ২০২০
GENAREL JE DIN DEBE KARIGORI SE DIN DILE 8 BOSOR PURNO HOTO..
Md. Tanvir Jahid, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
সব কিছুই ভাবা দরকার। একজন শিক্ষক নিয়োগ কালিন সময়ে যে শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে শিক্ষক জীবনে প্রবেশ করেন, সেই শিক্ষাগত যোগ্যতায় তার সকল পদন্নোতি বা পদ লাভ করার নৈতিক আধিকার রয়েছে। তাই নতুন নিয়ম আরোপ করে কাউকে সুবিধাবঞ্চিত করা ঠিক নয়। আর সহকারী অধ্যাপক সবার ক্ষেত্রে সহকারী অধ্যাপক থাকা উচিৎ এবং সহকারী আধ্যাপক ৫০% নয় বরং চাকরির বয়সের ভিত্তিতেই হওয়া সকলের জন্য ন্যায় হবে।
Md.Abiar Rahman, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
AK SHOPTAH PORE DIN. 01.12.2020 AMAR EIGHT BOSHOR PURNO HOBE.
Md.Abiar Rahman, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
KI UDDESSE KORA HOLO ATA? ASSITANT PROFESSOR HOTAM KINTU AKHON HOTE HOBE JESTHO PROVASHOK!
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
যা দেখলাম সবই উপরের দিক। মাধ্যমিক এবং ইবি পযায় কি দরকার নাই। ইবি প্রধানদের স্কেল সমন্বয় এবং মাধ্যমিকের উচ্চতর গ্রেড কি মারা গেল না-কি ?
Md. Anamul hoque, ২৫ নভেম্বর, ২০২০
সম্পাদক মহোদয়, দৈনিকশিক্ষা। বিষয়টি তুলে ধরার অনুরোধ রইল। পদবিতে মার দিয়ে আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ পদে দরখাস্ত করার পথ আলিম মাদরাসার প্রভাষকদের জন্য চিররুদ্ধ করা হয়েছে। এতে তারা চরম বৈষম্য ও বঞ্চনার শিকার হয়েছেন। আলিম মাদরাসার প্রভাষকদেরকে ভাতে মারা হয়নি, কিন্তু তাদেরকে সম্মান ও অধিকারের মার দেওয়া হয়েছে। কাজেই বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা উচিত। আলিম মাদরাসার প্রভাষকদের পদোন্নতির পর পদবি জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের জায়গায় সহকারী অধ্যাপকে প্রতিস্থাপন করা দরকার। বিষয়টি সুবিবেচনায় নেয়ার জন্য শিক্ষা ও শিক্ষক বান্ধব শিক্ষামন্ত্রীর কৃপাদৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এছাড়া মাদরাসার নীতিমালায় যুগে যুগে দেখেছি পদ সমন্বিত করণ বলে একটি ধারা থাকে কিন্তু দূখের বিষয় হলো এবার তা উল্লেখ না করে সম্পূর্ণ ফাঁকির কাজটি করা হয়েছে ! অথচ পদ সমন্বিত করণ ধারাটি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রাখা হয়েছে।! এ ক্যামন খেলা !আসলে কি মাদরাসা নিয়ে খেলতে ভালো লাগে তাই? লেখক :মোঃ এনামুল হক,,প্রভাসক, কৈকুড়ী শীতলডাঙ্গা আলিম মাদরাসা, নওগাঁ। মোবাইল নংঃ
M Sayeed Ahmed Akanjee, ২৫ নভেম্বর, ২০২০
এ কথাগুলো মন্ত্রী ও সচিব পর্যায়ের লোকজন কি একবারও ভাবলেন না। ওহ!
sreechail madrasha, ২৫ নভেম্বর, ২০২০
আবারও সেই কালো আইন অনুপাত প্রথা! আমরা যারা জুনিয়র তাদের তো প্রমোশন হচ্ছে না।লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে দক্ষতা যাচাই করে পদোন্নতি দিন। আমাদের কে দয়া করে পদোন্নতির ব্যবস্থা দিন।
shameem.mirpur, ২৫ নভেম্বর, ২০২০
আলীম মাদ্রাসা যে ৫,৭,১০ বছর পর ফাজিল/ কামিল মাদ্রাসায় পরিণত হবে না- তেমন তো নয় । তাই শিক্ষকদের সম্মান নষ্টকারী জ্যেষ্ঠ প্রভাষক পদ বাতিল করা হোক ।